ফেয়ার ইউসেজ পলিসি(সংক্ষেপে “ফাপড়”) সংক্রান্ত কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

আমরা সকলেই জানি বাংলাদেশের কোন আইএসপিই সঠিকভাবে ফাপ কি, ফাপ কেন হয়, ফাপ খায় না মাথায় দেয় ইত্যাদির সদুত্তর দিতে পারেনা। তবে আমরা যারা ফাপড়ে আছি তারা কিন্তু খুব একটা গবেষণা না করেই বুঝে ফেলতে পারি আইএসপি কেন আমাদের ফাপাচ্ছে। আসুন জেনে নেয়া যাক ফাপ কি, ফাপ কেন হয় এবং ফাপের নানাবিধ উপকারীতাসমূহ…

ফাপ কি?

জনপ্রিয় অনলাইন এনসাইক্লোপিডিয়া উইকির ভাষায়: ফেয়ার ইউসেজ পলিসি তথা “Acceptable Usage Policy” হচ্ছে কোন আইএসপি কর্তৃক প্রণিত: কিছু নিয়মাবলী যা ব্যবহারকারীর ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা সীমাবদ্ধ করে।(সূত্র: http://en.wikipedia.org/wiki/Fair_usage_policy)

বোঝাই যায় আমাদের বাঘা-বাঘা আইএসপি সমূহ এই নীতিমালার একেকজন বিশ্বস্ত অনুসারী। একারণেই দেশের বৃহত্তম দুটি ওয়াইম্যাক্স প্রোভাইডারের একটি আকাশপর্যন্ত সীমারেখা বেঁধে দিলেও সাথে এও বলে দেয় যে আকাশ ছুঁতে গেলেই ক্র্যাশল্যান্ডিং এর সম্ভাবনা প্রবল, এবং অপর আইএসপির মতে “খাও ঘুমাও রাজার হালে কিন্তু রাজকোষ ফুরিয়ে গেলে কিন্তু আমাদের কোন দোষ নাই”

ফাপ কেন হয়?

ফাপের সংজ্ঞা পাঠেই আশা করি অনেকে ফাপ সম্পর্কে সাধারণ একটা ধারণা পেয়ে গেছেন। আসুন এবার জেনে নিই ঠিক কোন কোন কাজ সুষ্ঠুরূপে সম্পাদন করলে আপনি সফলভাবে ফাপড়ে পড়তে পারেন…

১। তথাকথিত কোন একটি “আনলিমিটেড” প্যাকেজ নিয়ে মনের সুখে বিশাল বিশাল ফাইল টরেন্ট পিটুপি ইত্যাদি ক্লায়েন্টের মাধ্যমে ডাউনলোড করতে থাকুন, আশা করি শীঘ্রই ফাপড়ে পড়বেন! এরপরও যদি দেখেন স্পিড আগের মতই আছে তাহলে শুধু আইএসপির কাস্টমার কেয়ারে ফোন করে বলুন: “হেই আমি রাইতের বেলা স্পিড কম পাচ্ছি কেন? আমার একাউন্ট নম্বর অমুক”… ব্যাস, তাহলেই আপনার ফাপড়ে পড়ার সম্ভাবনা ১০০% নিশ্চিত!

২। লিমিটেড প্যাকেজ নিয়ে অল্প কিছুদিন সাবধানে হালকা-পাতলা ব্যবহারের পর ঘনঘন নেটওয়ার্কে সমস্যা হচ্ছে? গুরুত্বপূর্ণ অনেক ওয়েব পেইজ লোড হচ্ছেনা? ভাবছেন লিমিটেড প্যাকেজে এমন হবার কারণ কি? আর ভেবেভেবে কুলকিনারা খুঁজে লাভ নেই, আপনি নির্ঘাৎ “লিমিটেড ফাপড়”-এ পড়েছেন!! এই লিমিটেড ফাপড় কিন্তু আনলিমিটেডের চেয়েও ভয়াবহ কারণ এক্ষেত্রে অনেকসময়ই দেখা যায় প্যাকেজের স্বাভাবিক মূল্যের চেয়ে চড়া হারে সুদে-আসলে দুই-তিনগুণ বেশি বিল ধরা হচ্ছে…

৩। অনেকবার অনেকভাবে চেষ্টা করেও কিছুতেই ফাপড়ে পড়তে পারছেন না? ভাবছেন আপনি অন্যান্যদের চেয়ে বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন? মোটেও না! নির্ঘাৎ আপনার এলাকায় আপনিই একমাত্র নিয়মিত ইন্টারনেট ব্যবহারকারী!! কাজেই যত দ্রুত সম্ভব আত্মীয়-স্বজন এবং বন্ধুবান্ধবকে নিজ আইএসপির সংযোগ নিতে উৎসাহিত করুন, বিমলানন্দে আইএসপি প্রদত্ত “আমন্ত্রণে বিল মওকুফ” সুবিধা উপভোগ করুন, আশা করি এলাকায় ব্যবহারকারীর ঘনত্ব বৃদ্ধি পেলে শীঘ্রই মরার উপর খাড়ার ঘা-এর মতন মহাফাপড়ে পরবেন।

ফাপের উপকারীতা:

নিজে ফাপড়ে নাই দেখে আমাদের দুরবস্থা দেখে হাসছেন? ভাবছেন আমরা ফাপড়ে পরে কষ্টে আছি? নতুন নতুন ফাপড়ে পরে কেঁদেকেটে বুক ভাসাচ্ছেন? আরে রাখেন মিয়ারা, আমরা মোটেও কষ্টে নাই! কেন নাই তা নিম্নে সংক্ষেপে জানানোর চেষ্টা নিচ্ছি পড়তে থাকুন:

১। ফাপে পড়লে মানুষের হুঁশজ্ঞান বৃদ্ধি পায়। ফাপাক্রান্ত মানুষ বুঝতে পারে যে কোন আইএসপি বাইরে যতই মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে গ্রাহকদের আহ্লাদিত করুক না কেন ভেতরে সবারই সমান রাঙা

২। ফাপ আমাদের সংযমী হতে শেখায়, আমাদের ধৈর্যশক্তি বৃদ্ধি করে। কোনকিছু ডাউনলোড দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা তাকিয়ে থেকে জাবর কাটা বাঙালী নেটিজেনদের চিরাচরিত: ঐতিহ্য। কিছু ভন্ড আইএসপি কিছুদিন দ্রুত ইন্টারনেট সেবার ভান করে আমাদের এ ঐতিহ্যকে কেড়ে নিতে চেয়েছিল কিন্তু আমরা আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আবার সেই পুরনো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পেয়েছি।

৩। ফাপ আমাদের মূল্যবান সময় বাঁচায়। ফাপে পড়ে আমরা বিরক্ত হয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার কমিয়ে দেই, সারাদিন গাদাগাদা মুভি-গেমস না নামিয়ে অল্প পরিমাণে নামাই। যার ফলে আমরা প্রযুক্তির আশীর্বাদরূপ অভিশাপ কম্পিউটার/ইন্টারনেটের পিছনে কম সময় ব্যয় করে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ এবং সৃজনশীল কাজে অধিক সময় ব্যয় করতে পারি।

আজ এ পর্যন্তই, আগামী পর্বে আমরা আপনাদের উপহার দেবো ফাপ দিয়ে বানানো নানাপদের সুস্বাদু রেসিপি। সে পর্যন্ত আমাদের সাথেই থাকুন এবং আপনার মডেমটি দুহাতে আকাশের পানে উঁচিয়ে জোড়গলায় বলতে থাকুন: জয় বাংলা, জয় তথ্যপ্রযুক্তি, জয় হোক ফাপড়ের…